অধ্যায় ১১: আলো

JSC / বিজ্ঞান

অধ্যায় ১১: আলো

আলোর প্রতিসরণ:

আলো যখন এক স্বচ্ছ মাধ্যম থেকে অন্য স্বচ্ছ মাধ্যমে প্রবেশ করে তখন এটি তার গতিপথের দিক
পরিবর্তন করে। আলোর রশ্মির এই দিক পরিবর্তনই হলো আলোর প্রতিসরণ।

আলোর প্রতিসরণের নিয়ম

√. আলোক রশ্মি যখন হালকা মাধ্যম থেকে ঘন মাধ্যমে প্রবেশ করে তখন এটি অভিলম্বের দিকে সরে আসে।
এই ক্ষেত্রে আপতন কোণ প্রতিসরণ কোণ অপেক্ষা বড় হয়।
√. আলোক রশ্মি প্রথমে একটি মাধ্যম থেকে অন্য মাধ্যমে প্রতিসারিত হয় এবং পুনরায় একই মাধ্যমে
নির্গত হলে আপতন কোণ ও নির্গত কোণ সমান হয়।
√. আপতিত রশ্মি, প্রসারিত রশ্মি এবং আপতন বিন্দুতে দুই মাধ্যমের বিভেদ তলে অঙ্কিত অভিলম্ব একই
সমতলে থাকে।

[*পাঠ ৪,৫ উদাহরণ বই থেকে দেখে নিবে।]

পূর্ণঅভ্যন্তরীণ প্রতিফলন ও সংকট কোণ বা ক্রান্তি কোণ

আলোকরশ্মি ঘন মাধ্যম থেকে হালকা মাধ্যমে যাওয়ার সময় প্রতিসরিত রশ্মি অভিলম্ব থেকে দূরে সরে যায়।
আপতন কোণের মান ক্রমশ বাড়াতে থাকলে প্রতিসরণ কোণের মানও বাড়তে থাকে এবং একসময় তা দুই
মাধ্যমের তলে ৯০° তে চলে আসে। একে ক্রান্তি কোণ বা সংকট কোণ বলে।
এখন, আপতন কোণের মান আরো বাড়ালে প্রতিসরণ কোণের মানও ৯০° থেকে বেশি হয়ে যায় এবং ঘন
মাধ্যমেই ফিরে আসে যাকে পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন বলে।
নোটঃ
১. পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন হতে হলে আলোক রশ্মি অবশ্যই ঘন মাধ্যম থেকে হালকা মাধ্যমে যেতে হবে।
২. ঘন মাধ্যমের আপতন কোণ অবশ্যই সংকট কোণের চেয়ে বড় হতে হবে।
এই দুটি শর্ত মানলেই কেবল পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন ঘটবে।

অপটিক্যাল ফাইবার

  • এটি একটি খুব সরু কাচতন্তু।
  • এটা মানুষের চুলের মতো চিকন এবং নমনীয়।
  • আলোক রশ্মিকে বহনের কাজে এটি ব্যবহৃত হয়।
  • আলোক রশ্মি যখন এই কাচ তন্তুর মধ্যে প্রবেশ করে তখন এর দেয়ালে পুনঃপুন পূর্ণ অভ্যন্তরীণ
  • প্রতিফলন ঘটতে থাকে।

ম্যাগনিফাইং গ্লাস

কোনো উত্তাল লেন্সের ফোকাস দূরত্বের মধ্যে কোনো বস্তুকে স্থাপন করে লেন্সের অপর পাশ থেকে
বস্তুটিকে দেখলে বস্তুটির একটি সোজা, বিবর্তিত ও অবাস্তব বিম্ব দেখা যায়। এখন এই বিম্ব চোখের যত
কাছে গঠিত হবে চোখের বিক্ষণ কোণও তত বড় হবে এবং বিম্বটিকেও বড় দেখাবে।
কিন্তু বিম্ব চোখের নিকট বিন্দুর চেয়ে কাছে গঠিত হলে সেই বিম্ব আর স্পষ্ট দেখা যায় না।
এ ধরনের বস্তু বা কাচকে ম্যাগনিফাইং গ্লাস বলে।

মানব চক্ষু:
চোখের প্রধান অংশ গুলো হলো:

অক্ষিগোলক: চোখের কোটরে অবস্থিত এর গোলাকার অংশকে অক্ষি গোলক বলে।

শ্বেতমন্ডল: এটি অক্ষিগোলকের বাহিরের সাদা, শক্ত ও ঘন আঁশযুক্ত অস্বচ্ছ আবরণ বিশেষ।

কর্নিয়া: শ্বেতমন্ডলের সামনের অংশকে কর্নিয়া বলে।

কোরয়েড বা কৃষ্ণমন্ডল: এটি কালো রঙের একটি ঝিল্লি দ্বারা গঠিত শ্বেতমন্ডলের ভিতরের গাত্রের আচ্ছাদন বিশেষ।

আইরিশ: এটি কর্নিয়ার ঠিক পিছনে অবস্থিত একটি অস্বচ্ছ পদার্থ।

মণি: এটি কর্নিয়ার কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত মাংসপশিযুক্ত একটি গোলাকার ছিদ্রপথ।

স্ফটিক উত্তল লেন্স: এটি কর্নিয়ার পিছনে অবস্থিত জেলির মতো নরম স্বচ্ছ পদার্থে তৈরি একটি উত্তল
লেন্স।

রেটিনা: এটি গোলকের পিছনে অবস্থিত একটি ঈষদচ্ছ গোলাপি আলোকগ্রাহী পর্দা। রেটিনার উপর আলো পড়লে ঐ স্নায়ুতন্ত্রতে এক প্রকার উত্তেজনার সৃষ্টি হয় এবং মস্তিষ্কে দর্শনের অনুভূতি যোগায়।

অ্যাকুয়াস ও ভিট্রিয়াস হিউমার: লেন্স ও কর্নিয়ার মধ্যবর্তী স্থান এক প্রকার স্বচ্ছ জলীয় পদার্থে ভর্তি থাকে। একে বলে অ্যাকুয়াস হিউমার। লেন্স ও রেটিনার মধ্যবর্তী অংশে এক প্রকার জেলি পদার্থে পূর্ণ
থাকে। একে ভিট্রিয়াস হিউমার বলে।

ক্যামেরা ও চোখের তুলনা

১) এতে একটি রুদ্ধ আলোক প্রকোষ্ঠ থাকে যার ভিতর দিক কালো রঙে রঞ্জিত। কালো রঙের জন্য
ক্যামেরার ভিতর প্রবিষ্ট আলোকের প্রতিফলন হয় না। অপরদিকে, চোখের অক্ষিগোলকের কৃষ্ণ প্রাচীর
রুদ্ধ আলোক প্রকোষ্ঠের মতো ক্রিয়া করে। এই প্রাচীরের জন্য চোখের ভিতর আলোকের প্রতিফলন হয় না।

২) ক্যামেরার সাটারের সাহায্যে লেন্সের মুখ যেকোনো সময়ের জন্য খোলা রাখা যায়। পক্ষান্তরে, চোখের
পাতার সাহায্যে চক্ষু লেন্সের মুখ যেকোনো সময়ে খোলা রাখা যায়।

৩) ডায়াফ্রামের বৃত্তাকার ছিদ্র পথ ছোট বড় করে প্রতিবিম্ব গঠনের উপযোগী প্রয়োজনীয় আলো ক্যামেরায়
প্রবেশ করতে দেওয়া হয়। আর আপতিত আলোকের তীব্রতা ভেদে কর্নিয়ার ছিদ্র পথে আপনা আপনি সংকুচিত
ও প্রসারিত হয়ে প্রতিবিম্ব গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় আলোক প্রবেশ করতে পারে।

৪) লেন্সের একটি নির্দিষ্ট ফোকাস দূরত্ব থাকে। আর চোখে লেন্সের ফোকাস দূরত্বের সাথে যুক্ত পেশি
বন্ধনীর সাহায্যে পরিবর্তন করা যায়।

৫) আলোক চিত্রগ্রাহী প্লেটে লক্ষবস্তুর একটি বাস্তব উল্টা ও খাটো প্রতিবিম্ব ফেলা হয়। কিন্তু চোখে
আলোক সুবেদী অক্ষিপটে লক্ষবস্তুর বাস্তব, উল্টা ও খাটো প্রতিবিম্ব গঠিত হয়।

Leave your thought here

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Free 10 Days

Master Course Invest On Self Now

Subscribe & Get Your Bonus!
Your infomation will never be shared with any third party