অধ্যায় ৩ঃ এক মালিকানা ব্যবসায়

ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা / ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (১ম পত্র)

অধ্যায় ৩ঃ এক মালিকানা ব্যবসায়

গুরুত্বপূর্ণঃ একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা , বৈশিষ্ট্য , বৃহদায়তন ব্যবসায়ের পাশাপাশি একমালিকানা ব্যবসায় টিকে থাকার কারণ
অধিক গুরুত্বপূর্ণঃ
একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা , একমালিকানা ব্যবসায়ের গুরুত্ব ,
বৃহদায়তন ব্যবসায়ের পাশাপাশি একমালিকানা টিকে থাকার কারণ ।

একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা

একক ব্যক্তি মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত ও পরিচালিত ব্যবসায়কে একমালিকানা ব্যবসায় বলে ।

একমালিকানা ব্যবসায়ের বৈশিষ্ট্য

প্রাচীন ধরনের এ ব্যবসায় সংগঠন যেসকল বৈশিষ্ট্যের কারণে নিজস্ব স্বকীয়তা নিয়ে অদ্যাবধি অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে টিকে আছে তা নিম্নে –

১. একক মালিকানাঃ এরূপ ব্যবসায়ের প্রধান ও প্রথম বৈশিষ্ট্য হলো একক মালিকানা অর্থাৎ এ ব্যবসায়ের মালিক একজনমাত্র ব্যক্তি ।তিনি একাই মূলধন সংগ্রহ করেন ও ব্যবসায় পরিচালনা , সিদ্ধান্ত গ্রহণ একাই করে থাকেন ।

২.সহজ সংগঠনঃ সহজ সংগঠন বলতে গঠন ও পরিচালনা সহজ এমন বুঝায় ।একমালিকানায় আইনগত ঝামেলা থাকে না বিধায় , এর গঠন খুবই সহজ ।

৩. সীমিত মূলধন ও আয়তনঃ একক মালিকের সামর্থ্যের সীমাবদ্ধতার কারণে এধরণের ব্যবসায়ের মূলধন স্বভাবতই কম থাকে । ফলে তা সাধারণত ক্ষুদ্রায়তন প্রকৃতিতেই হয় ।

৪.মালিকের অসীম দায়ঃ মালিকের অসীম দায় বলতে ব্যবসায়ে বিনিয়োগকৃত মূলধনের বাহিরে ও দায় সৃষ্টি হওয়াকে বুঝায় ।যার কারণে এরূপ ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করতে অনেকেই নিরুৎসাহিত হয়।

৫.একক কর্তৃক ও নিয়ন্ত্রণঃ কর্তৃক ও ক্ষমতার মূলে থাকে কোনো বিষয়ের মালিকানা ।ব্যবসায়ের যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণে মালিক একক অধিকার ভোগ করে ।কারও কাছে কোনো জবাবদিহি করতে হয় না তাই একমালিকানা ব্যবসায়ে মালিক সর্বেসর্বা ।

৬.প্রত্যক্ষ সম্পর্কঃ প্রত্যক্ষ সম্পর্ক বলতে মালিকের সাথে কর্মচারী ও গ্রাহকদের সরাসরি সম্পর্ককে বুঝায় ।ব্যবসায়ের পরিধি ছোট হওয়ায় মালিক স্বল্পসংখ্যক কর্মচারী সাথে নিয়ে ব্যবসায় পরিচালনা করে । ফলে , কর্মীদের সাথে সহজেই ভালো সম্পর্ক গড়ে ওঠে ।

৭.মালিক ও ব্যবসায়ের সত্তার অভিন্নতাঃ সত্তা বলতে কোনো কিছুর পৃথক অস্তিত্ব বা বিদ্যমানতাকে বুঝায় । একমালিকানা ব্যবসায়ে মালিকের সত্তাই মুখ্য ।ব্যবসায়ের সাথে লেনদেন মূলত মালিকের সাথেই লেনদেন বুঝায় ।আবার কেউ যদি ব্যবসায়ের বিরুদ্ধে মামলা করে তবে তা ও মালিকের নামেই করা হবে ।

৮.নমনীয়তাঃ পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে খাপ-খাইয়ে চলার সামর্থকে নমনীয়তা বলে ।কিছু ক্ষেত্র এমন রয়েছে যেখানে পরিস্থিতি দ্রুত পরিবর্তিত হয়।এক মালিকানা ব্যবসায়ে মালিক একজন থাকায় এবং তিনি নিজে ব্যবসায় চালানোয় যেকোনো পরিস্থিতিতে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে পরিবর্তিত পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারেন ।তাই একমালিকানা ব্যবসায়ে নমনীয়তা গুণ বেশি থাকে ।

৯.অনিশ্চিত স্থায়িত্বঃ একমালিকানা ব্যবসায় অনিশ্চিত স্থায়িত্ব বলতে যেকোনো সময় ব্যবসায় বন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বুঝায় ।এ ব্যবসায় গড়তে যেমন আইনি ঝামেলা পোহাতে হয় না তেমনি বন্ধ করতে ও কোনো আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয় না ।মালিকের মৃত্যু , অসুস্থতা , বিদেশ গমন বা অন্য কোনো সাধারণ কারণেই এ ব্যবসায় বন্ধ হয়ে যেতে পারে ।

একমালিকানা ব্যবসায়ের গুরুত্ব

১. ব্যাপক সেবা প্রদান
২. সঞ্চয় ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি
৩. আয় ও সম্পদ বৃদ্ধি
৪.অধিক কর্মসংস্থান
৫. উত্তম প্রশিক্ষণ ক্ষেত্র
৬.সম্পদের সুষম বন্টন
৭. জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন

বৃহদায়তন ব্যবসায়ের পাশাপাশি ক্ষুদ্রায়তন একমালিকানা ব্যবসায় টিকে থাকার কারণ

১. সহজ গঠন প্রণালী
২. মালিকের স্বাধীনতা
৩. স্বল্প পুঁজির ব্যবসায়
৪. অবস্থানগত সুবিধা
৫.ক্ষেত্রগত সুবিধা
৬.পরিচালনাগত সুবিধা
৭.ঝুঁকির স্বল্পতা

Leave your thought here

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Free 10 Days

Master Course Invest On Self Now

Subscribe & Get Your Bonus!
Your infomation will never be shared with any third party