অধ্যায় ৭: পৃথিবী ও মহাকর্ষ

JSC / বিজ্ঞান

অধ্যায় ৭: পৃথিবী ও মহাকর্ষ


মহাকর্ষ:

মহাবিশ্বের যেকোনো দুটি বস্তুর মধ্যে যে আকর্ষণ তাকে মহাকর্ষ বলে। এই মহাকর্ষ নিয়ে নিউটনের বিখ্যাত একটি সূত্র আছে যা নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র নামে পরিচিত:
F= Gm1m2 / d^2
অর্থাৎ পরস্পর থেকে d দূরত্বে অবস্থিত m1 ও m2 ভরের দুটি বস্তুর মধ্যকার আকর্ষণ বল হল F।
এখানে G সমানুপাতিক ধ্রুবক যাকে বিশ্বজনীন মহাকর্ষীয় ধ্রুবক বলে।

অভিকর্ষ ও অভিকর্ষজ ত্বরণ:

১| পৃথিবী এবং অন্য যেকোনো বস্তুর মধ্যে যে আকর্ষণ সেটিই অভিকর্ষ।
২|
(ক) অভিকর্ষ বলের প্রভাবে ভূপৃষ্ঠে মুক্ত ভাবে পড়ন্ত কোনো বস্তুর বেগ বৃদ্ধির হারকে অভিকর্ষজ ত্বরণ
বলে।
(খ) অভিকর্ষজ ত্বরণ কে g দ্বারা প্রকাশ করা হয়।
(গ) অভিকর্ষজ ত্বরণের একক মিটার/সেকেন্ড^২।
(ঘ) অভিকর্ষজ ত্বরণের মান বস্তু নিরপেক্ষ কিন্তু স্থান নিরপেক্ষ নয় অর্থাৎ বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন
রকম হয়।
(ঙ) অভিকর্ষজ ত্বরণের মান পৃথিবীতে মেরু অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি এবং বিষুবীয় অঞ্চলে সবচেয়ে কম।

ভর ও ওজন:

ওজন:
✓ কোনো বস্তুকে পৃথিবী যে বল দ্বারা তার কেন্দ্রের দিকে আকর্ষণ করে তাকে বস্তুর ওজন বলে।
✓ W=mg; যেখানে w বস্তুর ওজন, m বস্তুর ভর এবং g ঐ স্থানের অভিকর্ষজ ত্বরণ।
✓ ওজনের একক নিউটন।
✓ স্প্রিং নিক্তির সাহায্যে বস্তুর ওজন পরিমাপ করা হয়।
✓ যেসব কারণে অভিকর্ষজ ত্বরণ পরিবর্তিত হয় সেসব কারণে ওজনও পরিবর্তিত হয়। সাধারণত তিনটি কারণে পৃথিবীতে কোনো বস্তুর ওজনের পরিবর্তন হয়:
১। ভূপৃষ্ঠের বিভিন্ন স্থানে (পৃথিবীর আকৃতির জন্য এবং পৃথিবীর আহ্নিক গতির জন্য)।
২। ভূপৃষ্ঠ থেকে উচ্চতর কোনো স্থানে (ভূপৃষ্ঠ থেকে যত উপরে উঠা যায় অভিকর্ষজ ত্বরণ ও বস্তুর ওজন
ততই কমতে থাকে)।
৩। পৃথিবীর অভ্যন্তরে কোনো স্থানে (ভূপৃষ্ঠ থেকে যত নিচে যাওয়া যায় অভিকর্ষজ ত্বরণ ও বস্তুর ওজন
তত কমতে থাকে। পৃথিবীর কেন্দ্রে অভিকর্ষজ ত্বরণ শূন্য বিধায় কোনো বস্তুর ওজনও সেখানে শূন্য হবে)।

লিফটে ওজনের তারতম্য:
১। লিফট যখন স্থির অবস্থান থেকে উপরের দিকে উঠতে শুরু করে তখন লিফটের নিজস্ব একটি ত্বরণ সৃষ্টি
হয় যার সাপেক্ষে আমাদের ত্বরণ g এর চেয়ে বেশি হয় এবং আমরা নিজেদেরকে ভারী অনুভূত করি। আবার
উঠতে গিয়ে লিফট যখন সমবেগ প্রাপ্ত হয়ে যায় তখন লিফটের ওই ত্বরণ টা থাকেনা তাই আমরা নিজেদেরকে
ভারী ও আর অনুভব করিনা।

২। লিফট যখন স্থির অবস্থান থেকে নিচে নামতে শুরু করে তখন ও লিফটের একটি ত্বরণ সৃষ্টি হয় যার
সাপেক্ষে আমাদের ত্বরণ g এর চেয়ে কমে যায় এবং আমরা নিজেদেরকে হালকা অনুভব করি।

৩। লিফট যদি মুক্ত ভাবে নিচে পড়তে থাকে অর্থাৎ লিফট এর ত্বরণ যদি g হয় তাহলে তার সাপেক্ষে
আমাদের ত্বরণ হবে (g-g) বা শূন্য ফলে আমরা নিজেদেরকে তখন ওজনহীন মনে করব।

Written by:

নাফিসা আনজুম মৌলি

ব্যাংকিং ও বীমা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

Leave your thought here

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Free 10 Days

Master Course Invest On Self Now

Subscribe & Get Your Bonus!
Your infomation will never be shared with any third party